ব্লগস্পট নাকি ওয়ার্ডপ্রেস!! কি বেছে নেবো আমার ব্লগের জন্য? কোনটি সঠিক?

সাম্প্রতিক ঘটনাসমূহঃ-

সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যায় অনেকেই তাদের “ব্লগস্পট” ব্লগটিকে সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে “ওয়ার্ডপ্রেস” এর দিকে। আবার অনেকে “ব্লগস্পট” অথবা “ওয়ার্ডপ্রেস” এর মাঝেই সফলতা লাভ করছে। তাদের দুই দিন পর, পর দু’টানায় পরে ব্লগ পরিবর্তন করতে হচ্ছে না।

ঠিক এরকম কতোটা হয়েছে বা হবে আমি বলতে পারবো না সঠিক ভাবে। তবে আমি ব্লগস্পট এবং ওয়ার্ডপ্রেস যেটাতেই ব্লগ বানানো হোক না কেন, সেই ব্লগ বানানোর আগে কিছু পরামর্শ ও ধারণা দিতে পারি। যেন এক দিন এখানে বানিয়ে পরে আবার আপনাকে দুই দিন পর সেটা অন্য জায়গায় নেয়ার কষ্ট টি না করতে হয়।

blogger-vs-wordpress

কেন এমন হচ্ছেঃ-

এসব হবার মুল কারণ ই হচ্ছে কেও সঠিক ভাবে না যানার চেষ্টা করে হট করে ব্লগ বানিয়ে ফেলে। “ব্লগস্পট” ও “ওয়ার্ডপ্রেস” এর মাঝে কি, কি সুবিধা,অসুবিধা রয়েছে তা তারা লক্ষ্য করে না।

আমি অনেক কেই দেখেছি যারা পেইড ব্লগ বানিয়ে ফেলছে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কিন্তু যখন ব্লগ পরিচালনা করতে যাচ্ছে তখন সোজা বাংলায় খাচ্ছে “বাঁশ”। তারা তখন প্রতিনিয়তই আপসুস করতে থাকে তাদের না যেনে ভুল করার কারণে।

তারা হয়তো মনে করেছে যে “ব্লগস্পট” বা “ওয়ার্ডপ্রেস” এর মাঝে আমি সব সুবিধাই পাবো,তাই এতো কিছু চিন্তা করার প্রয়োজন কি? কিন্তু আসলে তা নয়। পরবর্তীতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে আসলে তার ব্লগটিকে পরিপূর্ণ ভাবে তৈরি করতে প্রয়োজন ছিল হয়তো “ওয়ার্ডপ্রেস” এর কিন্তু সে না যানার ফলে পেইড ভাবেই তৈরি করে ফেলেছে ঝুঁকের বসে ব্লগটি “ব্লগস্পট” এর মাঝেই!!

এতে তার ফলাফল কি দাঁড়ায়? অবশ্যই “শূন্য” এর চেয়ে বেশি কিছু দাঁড়াবে না। কারণ এখন তার আর কিছু করার নেই। যার ফলে তার মনের মতো ব্লগ না পাওয়ার ফলে, একটি অপূর্ণ ব্লগেই কাটাতে হবে।তাই চলুন কিছুটা আলোচনা করা যাক এদের উপর।

Environergy - Solar PV and Thermal ENERGY - What Next

ব্লগার “ব্লগস্পট” । আপনার ব্লগিং এর হাতে খড়ির জন্য একটি সুন্দর প্লাটফ্রমঃ-

১/ সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষ্য করে দেখবেন ব্লগার.Com তাদের এডমিন প্যানেল পরিবর্তন করেছে। যা দেখতেও অতান্ত সুন্দর, পরিষ্কার এবং আগের থেকে লক্ষ্য করে দেখবেন লোড হচ্ছে দ্রুত। যা একজন নতুন ব্লগার কে আকর্ষণ করতে সক্ষম।

২/ “ওয়ার্ডপ্রেস” থেকে “ব্লগস্পট” এর টেম্পলেট খুব সহজ ভাবে এডিট করা যায়। যারা একেবারে নতুন তারাও কিছুটা চেষ্টা করলে এডিট করতে পারবে। আর আপনি খুঁজে পাবেন “ব্লগস্পট” এর জন্য অসংখ্য টেম্পলেট (থিম)। আপনি তা কিনতেও পারবেন আবার ফ্রী তে ডাউনলোড করে এডিট করে নিতে পারবেন সঠিক ভাবে “এইচটিএমএল”(HTML) এর মাধ্যমে।

৩/ তবে আপনি ব্লগস্পট এর মাঝে কোন প্লাগিং পাবেন না। যার ফলে এখানে আপনি “ওয়ার্ডপ্রেস” এর মতন প্লাগিং ব্যবহার করে ব্লগটিকে যা ইচ্ছা তাই করতে পুরোপুরি সক্ষম হতে পারবেন না। তবে আপনি এখানে ব্লগ সাইডবার, ফুটার, হেডার বা অন্যান্য জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন “উইজেট”। তবে আপনি যদি কোন অন্যধরণের কোন ফিচার বা কাস্টোমাইজ করতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই “এইচটিএমএল”(HTML) এর জ্ঞান রাখতে হবে।

৪/ সাধারণত প্রায় সবাই বলতে গেলে “ব্লগস্পট” এর মাঝে ব্লগ তৈরি করার ক্ষেত্রে এড পাওয়ার কথা চিন্তা করেই বানিয়ে থাকে। কারণ আপনি এখানে পবেন গুগলি থেকে এড এর সুবিধা। যার জন্য যদি কিছুটা কষ্ট করেন তবে টাকা আয় করা আপনার জন্য ব্লগারের “ব্লগস্পট” মাধ্যমটাই বেটার হবে।

৫/ যখন আপনি আপনার ব্লগটি “ব্লগস্পট” এর মাঝে শুরু করবেন তখন সেটি আপনার মালিকাধিন থাকলেও থাকবে না। কারণ ব্লগার টিম সেটি প্রতিনিয়ত দেখবে। আপনি যদি কোন কিছু কপি করেন বা কেও যদি আপনার ব্লগের নামে তাদের কাছে রিপোর্ট করে তবে তারা ঐ পোষ্ট সরিয়ে দেবার ক্ষমতা রাখে, আবার আপনার ব্লগটিকে চিরতরে বন্ধ করে দেওয়া ও নতুন কিছু নয়। তাই এখানে এই সমস্যা টিই বেশি ঝামেলা করে থাকে।

blogger-logo

তবে হ্যাঁ আবারো বলতেই হচ্ছে যারা নতুন তাদের জন্য ব্লগস্পট হচ্ছে “হাতেখড়ি” দেয়ার জন্য অন্যতম একটি মাধ্যম।

নিজের একটি সুন্দর বেক্তিগত প্লাটফরম এর জন্য ওয়ার্ডপ্রেস কে ধন্যবাদ দিনঃ-

১/ আপনি আপনার ব্লগটিকে সুন্দর এবং ভালো মানের করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ওয়ার্ডপ্রেস কে সরণ করতে হবে। ওয়ার্ডপ্রেস এর ড্যাশবোর্ড অতান্ত গুছালো এবং আপনি লক্ষ্য করে দেখবেন প্রায় সব সিরিয়াস বেক্তিগত এবং কমিউনিটি ব্লগ গুলো ওয়ার্ডপ্রেস দিয়েই তৈরি।

২/ ওয়ার্ডপ্রেস এর থিম আপনি যেভাবে ইচ্ছে সেভাবে বানিয়ে নিতে পারবেন। এছারাও “ব্লগস্পট” এর মতই আপনি অসংখ্য ওয়ার্ডপ্রেস ফ্রী থিম পেয়ে যাবেন।

৩/ আর হ্যাঁ এখানে আপনি পারবেন প্লাগিং ব্যবহার করতে। যদিও এখানে কোডিং করা যায় তার পরেও তা অনেকের কাছেই বেঝাল মনে হয়। আর ব্লগস্পট এর মাঝে বেঝাল হলেও কোডিং করা ছারা কোন উপায় নেই। যার ফলে প্লাগিং ব্যবহার করতে হলে আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস এর কাছেই আসেতে হবে। আর এতো, এতো প্লাগিং এর মাঝে আপনি নিজের প্রয়োজনীয় প্লাগিং টি বের করে দিতে পারেন আপনার ব্লগটিকে অন্য রকম ভিন্নতা।

৪/ সবারই হয়তো যানা রয়েছে যে ওয়ার্ডপ্রেস একটি ওপেনসোর্স সফটওয়্যার এবং এর রয়েছে একটি বিশাল কমিটি। যাতে প্রতিনিয়তই যোগ হচ্ছে অসংখ্য থেকে অসংখ্য সদস্য। কারণ এখানেই আপনি আপনার ব্লগটিকে টেম্পলেট ও প্লাগিং এর মাধ্যমে খুব সহজে সবার থেকে আলাদা ভাবে তৈরি করে নিতে সক্ষম হবেন। এতে আপনি বিভিন্ন সহায়তা নিতে পারবেন wordpress.org থেকে।

৫/ ওয়ার্ডপ্রেস এ আপনার মালিকানা একমাত্র আপনারই। এখানে ব্লগস্পট টিম এর মতো কেও আপনার পথে বাঁধা হয়ে আসবে না। আপনার কেনা ডোমেইন, হোস্টিং শুধু মাত্র আপনারই!! কেও এসে রিপোর্ট করুক আর যাই করুক। কোন কাজে দেবে না, যার ফলে আপনার কষ্টের লেখা বা আপনার ডাটা গুলো প্রতিনিয়তই থাকবে সেফ। তাছারা আপনি এখানে ব্যাকআপ রাখার ফলে ডাটা হারিয়ে যাবার কোন চাঞ্চই নেই।

We-Love-WordPress

এই জন্যই সবাইকে বলবো আপনার ব্লগটি হুট করে বানিয়ে পরে আফসুস না করে প্রথমেই সঠিক ভাবে চিন্তা করে তারপর বানান।

আগে ঠিক করুনঃ-

  1. আপনার ব্লগের বিষয় কি?
  2. কি, কি সুবিধা থাকবে?
  3. কি করতে চান?
  4. ব্লগটি কেমন হবে দেখতে?
  5. যেখানে তৈরি করতে যাচ্ছেন সেই প্লাটফরম কি আসলেই তার জন্য উপযুক্ত কি না?

thinking

তবেই না আপনার ব্লগটি সুন্দর ও পারফেক্ট রূপ ধারণ করবে। আপনার চিন্তা ধারা হোক সঠিক ক্ষেত্রে এবং প্রত্যাশা রাখি যেন আপনার সব ভালো ইচ্ছে গুলো কোন ঝামেলা ছাড়াই পূর্ণ হয়। সেই পর্যন্ত বিদায়… ।

“ সবাই ভালো থাকুন, ভালো থাকার চেষ্টা করুন”।

তারছিঁড়া তামিম (বাংলার মানুষ)

আমায় প্রশ্ন করে নীল ধ্রুবতারা আর কত কাল আমি রব দিশাহারা, রব দিশাহারা!

You may also like...

1 Response

  1. খোকন বলেছেন:

    সুদর লিখেছেন। আমি জুমলায় আছি, ওয়ার্ডপ্রেসে যাবার খুব ইচ্ছা।

মন্তব্য করুন